Home ব্যবহারিক নির্দেশিকা লে আউট (Layout) কি? ভবনের লে আউট দেয়ার নিয়ম

লে আউট (Layout) কি? ভবনের লে আউট দেয়ার নিয়ম

4
লে আউট কি? Building Layout দেওয়ার নিয়মসহ বিস্তারিত
বিল্ডিং লেআউট কি? প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি ও মালামালসহ লেআউট দেওয়ার নিয়ম এবং কর্মপদ্ধতি।

লে আউট (Layout)

লে আউট হলো, যেকোন একটি কাজ শুরু করার পূর্বে, প্রস্তাবিত কাজ বাস্তবায়নের জন্য পরিকল্পনার একটি রূপরেখা। ইঞ্জিনিয়ারগণ যে কোন অবকাঠামো নির্মাণের জন্য একটি পুর্ব পরিকল্পনা করে থাকেন। সেই পরিকল্পনা অনুযায়ী বিভিন্ন রেফারেন্স লাইনের মাধ্যমে অবকাঠামোর বিভিন্ন অংশের ডায়মেনশন উল্লেখপূর্বক ড্রয়িং তৈরী করা হয়। এই রেফারেন্স লাইনগুলোকে বলা হয় গ্রীড লাইন। প্রস্তুতকৃত ড্রয়িংয়ে গ্রীড লাইনগুলোর সাপেক্ষে উল্লেখিত মাপের মাধ্যমে অবকাঠামোর বিভিন্ন অংশগুলোর অবস্থান নির্ধারণ করে দেয়া থাকে। যা লেআউট প্লান বা ড্রয়িং নামে পরিচিত। ইমারত নির্মাণের ক্ষেত্রে, ইহাকে বিল্ডিং লেআউট (Building Layout) প্লান বলা হয়।

ভবনের লে আউট (Building Layout)

ড্রয়িংয়ে যেকোন প্ল্যান বা নকশা সাধারণত কাগজের উপর ছোট স্কেলে অংকিত থাকে। কাগজের ড্রয়িংটিকে বাস্তব ভুমির ক্ষুদ্র সংষ্করণ বলা যেতে পারে। ভবনটির নির্মাণ কাজ শুরুর পুর্বে ড্রয়িংয়ে অংকিত নকশাটিকে প্রকৃত স্কেলে ভূমিতে চিহ্নিত করতে হয়, যাতে সহজেই প্রতিটি কলাম, ফুটিং, ওয়াটার রিজার্ভার, সেপ্টিক ট্যাংক, সিড়িঘর, লিফট সহ ভবনের প্রত্যেকটি অংশের সঠিক অবস্থান, ওরিয়েন্টেশন এবং সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়- ভবনটি সীমানার ভিতরে কোন অবস্থানে আছে তা নির্ণয় করা যায়। ড্রয়িংয়ে অংকিত নকশাটিকে প্রকৃত মাপ অনুযায়ী বাস্তব জমিতে বা ভুমিতে স্থানান্তর করাকে প্রকৌশলবিদ্যায় ভবনের লেআউট (Building Layout) দেয়া বোঝায়।


পাইলিং (Piling) কি? যন্ত্রপাতিসহ পাইলিং করার নিয়ম


ভবনের লে আউট (Building Layout) এর ২টি নমুনা নকশা বা প্ল্যান সংযুক্ত করে দেয়া হলোঃ

ভবনের লে আউট (Building Layout) দেওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি ও মালামালঃ

১) ষ্টিল মেজারিং টেপ (১৬-০” এবং ১০০’-০” লম্বা)
২) লাল রং এবং ব্রাশ (গ্রীড লাইন মার্কিং এর জন্য)
৩) হাতুড়ি বা হ্যামার
৪) সুতা
৫) ট্রাই স্কয়ার/মাটাম  
৬) ওয়াটার লেভেল পাইপ
৭) বাঁশের খুটি
৮) তাগারি
৯) কর্ণি
১০) কোদাল
১১) শাবল
১২) স্টিল তারকাটা ২” এবং ৩”
১৩) প্লাম্ববব বা ওলন
১৪) সাদা কাগজ
১৫) লে-আউট প্ল্যান (স্ট্রাকচারাল ও আর্কিটেকচারাল)
১৬) রাজউক/পৌরসভা/ সিটি কর্পোরেশন অনুমোদিত নকশা
১৭) ক্লিপ বোর্ড
১৮) কলম ও পেন্সিল
১৯) ক্যালকুলেটর  
২০) সিমেন্ট
২১) লোকাল বালু ইত্যাদি


ভিত্তি বা ফাউন্ডেশন (Foundation) সম্পর্কে বিস্তারিত


ভবনের লে আউট (Building Layout) দেওয়ার নিয়ম এবং কর্মপদ্ধতি।

১) প্রথমেই রাজউক এ্যাপ্রুভাল ড্রয়িং, আর্কিটেকচারাল ড্রয়িং, স্ট্রাকচারাল ড্রয়িং ভালোভাবে পর্যবেক্ষণ করতে হবে। সবগুলো ড্রয়িংয়ে উল্লেখিত মেজারমেন্ট পরস্পরের সাথে সঙ্গতিপুর্ণ কিনা তা ভালোভাবে চেক করে নিতে হবে।

২) রাজউক এ্যাপ্রুভাল ড্রয়িং, আর্কিটেকচারাল ড্রয়িং, স্ট্রাকচারাল ড্রয়িং অনুযায়ী প্রস্তাবিত জমির মাপ ঠিক আছে কিনা তা চেক করতে হবে। যদি জায়গা ড্রইং এর চেয়ে ছোট বা বড় হয়, অবশ্যই তাহা কর্তৃপক্ষকে জানাতে হবে।

৩) লেভেল পাইপ দিয়ে রোড লেভেল (ক্রেস্ট বা সর্বোচ্চ স্থান) হতে সাধারনত ৩ ফুট উপরে সাইটের বিভিন্ন স্থানে লেভেল স্থাপন করতে হবে। পরবর্তী কাজের সুবিধার্থে লেআউট এর সময় সকল পয়েন্ট যেন একই লেভেলে থাকে সেটি নিশ্চিত করতে হবে।

৪) প্রজেক্টের এর মধ্যে যে বাউন্ডারী ওয়ালটি সবচেয়ে বেশী সোজা, সম্ভব হলে সেই দিক থেকে লেআউট আরম্ভ করতে হবে অথবা কোন রেফারেন্স লাইন থেকে মাপ নিয়ে কাজ শুরু করতে হবে।

৫) সাধারণত আর্কিটেকচারাল ড্রয়িং, স্ট্রাকচারাল ড্রয়িংয়ের গ্রীড লাইনের ডিরেকশন ও মাপ একই থাকে। একই রকম না থাকলে তা উর্ধবতন কর্মকর্তাকে জানাতে হবে। তিনি সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গ বা প্রতিষ্ঠানের সাথে কথা বলে সমস্যাটি সমাধান করবেন।

৬) স্ট্রাকচারাল ড্রয়িং এর লেআউট প্ল্যান অনুযায়ী উত্তর দক্ষিণে এবং পূর্ব পশ্চিমে ড্রইং অনুসারে Grid লাইন বরাবর সুতা টানাতে হবে এবং চার কর্নার মাটাম দ্বারা অথবা পিথাগোরাসের সূত্র অনুসারে ফিতার/ টেপের সাহায্যে ৩ ফুট, ৪ ফুট ও ৫ ফুট অথবা ১৫ ফুট, ২০ ফুট ও ২৫ ফুট অথবা ইহার গুনিতক বাহু নিয়ে একটি সমকোনী ত্রিভুজ তৈরী করে চার কর্ণারে ৯০ ডিগ্রী কোণ ঠিক আছে কিনা তা চেক করতে হবে।  অথবা বড় মাটাম দিয়েও চেক করা যাবে।  


সাইট মোবিলাইজেশন (Site Mobilization)


৭) গ্রীড লাইনের সকল সূতা বাঁধার পর ভিতরের প্রত্যেকটি প্যানেলের কোনাকুনি মাপ ঠিক আছে কিনা তা চেক করতে হবে।

৮) এক গ্রীড লাইন হতে অপর গ্রীড লাইনের মাপ ঠিক আছে কিনা তা যাচাই করতে হবে।

৯) লে-আউট একাধিকবার চেক করতে হবে, কারণ লেআউট ভুল হলে, পুরা বিল্ডিং এর কাজটি ভুল হয়ে যাবে।

১০) গ্রীড লাইন হতে রাজউকের ড্রয়িং অনুযায়ী পর্যন্ত জায়গা ছেড়ে দিতে হবে। গ্রীড লাইন হতে কোন পার্শ্বে জায়গা বেশি বা কম পাওয়া গেলে তা নিশ্চিত হয়ে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করতে হবে । পরবর্তিতে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী লে-আউট চূড়ান্ত করতে হবে ।

১১) লেআউট চূড়ান্ত হয়ে গেলে গ্রীড লাইনের পয়েন্টগুলি সুতা এক্সটেনশন করে চারিদিকের স্থায়ী ওয়ালে তারকাটার সাহায্যে চিহ্নিত করতে হবে। তবে স্থায়ী ওয়াল না থাকলে স্থায়ী Brick Pillar তৈরী করে নিতে হবে।

১২) গ্রীড লাইন এর পয়েন্ট গুলোতে প্রয়োজনীয় জায়গা চিপিং করে ১০”X১০” সিমেন্ট বালি মটার দিয়ে স্থায়ীভাবে চিহ্ন রাখতে হবে। যদি স্থায়ী ওয়াল/ স্থায়ী স্থাপনায় না পারা যায় তবে বাঁশের খুটি মাটিতে কমপক্ষে ৩ ফুট প্রবেশ করে স্থায়ীভাবে গ্রীড লাইনের চিহ্ন রাখতে হবে।

১৩) গ্রীড লাইন চিহ্নিত পয়েন্টগুলোতে গ্রীড লাইন নাম্বার ও একটি গ্রীড হতে অপরটির দূরত্ব রং দিয়ে লিখে রাখতে হবে।

১৪) লেআউট শেষ হলে অবশ্য অবশ্যই G.Lও P.L ঠিক করতে হবে।

১৫) গ্রীড লাইনের রেফারেন্স-এ আর্কিটেকচারাল ও স্ট্রাকচারাল ড্রয়ীং মোতাবেক কলাম ফুটিং এর লে-আউট দিতে হবে । মনে রাখতে হবে ফুটিং এর সেন্টার লাইন এবং কলামের সেন্টার লাইন একই বিন্দুতে হবে।

১৬) লে-আউট দিতে গিয়ে কোন সমস্যার উদ্ভব হলে, উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী কাজ করতে হবে।

প্রযুক্তির উন্নয়নের ফলে আরো নিখুত ও নির্ভুল কাজের জন্য ইদানিং ভবনের লে-আউট দেয়ার জন্য আজ টোটাল ষ্টেশনের ব্যবহার দেখা যাচ্ছে। বাংলাদেশে বেশ কিছু ডিজিটাল সার্ভে কোম্পানী আছে যারা টোটাল ষ্টেশনের মাধ্যমে নির্ভুলভাবে ইমারতের লেআউট দিয়ে থাকে। যে পদ্ধতিতেই লে আউট দেয়া হোক না কেন, নির্ভুল ও নিখুত হওয়া খুবই গুরুত্বপুর্ণ।  

লেআউটের প্রয়োজনীয়তাঃ

১) কাজ করার সময় ভুল হওয়ার সম্ভাবনা কমাতে লেআউট এর গুরুত্ব অপরিসীম।
২) মিস্ত্রিরা যেন সহজেই নির্ভুলভাবে রেফারেন্স লাইন বা গ্রীড লাইন হতে মাপ নিয়ে কাজ করতে পারে।
৩) ড্রয়িং এ জায়গার সাথে অসামঞ্জস্যপূর্ণ কোন ভুল ত্রটি থাকলে প্রথমেই ধরা পড়ে যায় এবং সংশোধন করার সুযোগ থাকে ।
৪) ভবনের কোন এলাইনমেন্ট যেন বাঁকা না হয় সেটি নিয়ন্ত্রণে সুবিধা হয়।
৫) ইমারতটি ভবিষ্যতে কেমন হবে সেই সম্পর্কে একটি প্রাথমিক ধারণা পূর্বে থেকেই পাওয়ার যায়।

4 COMMENTS

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

error: Copy Protected !! You are not allowed to reproduction)
Exit mobile version